22 C
Dhaka
Wednesday, January 20, 2021

সাবেক প্ৰেসিডেন্ট হাফেজ মুহাম্মদ মুরসীর ইন্তেকালে আল্লামা বাবুনগরীর শোক প্ৰকাশ

- Advertisement -
- Advertisement -

মিশরের সাবেক নিৰ্বাচিত প্ৰেসিডেন্ট ডক্টর হাফেজ মুহাম্মদ মুরসীর ইন্তেকালে গভীর শোক প্ৰকাশ করেছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ও হাটহাজারী মাদরাসার সহযোগী পরিচালক আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী

১৮ জুন মঙ্গলবার সংবাদ মাধ্যমে প্ৰেরিত এক শোক বাৰ্তায় আল্লামা বাবুনগরী বলেন,মুহাম্মাদ মুরসী একজন হাফেজে কুরআন প্ৰেসিডেন্ট ছিলেন,কুরআন হাদীস সম্পৰ্কে ছিল তাঁর যতেষ্ট জ্ঞান এবং তিনি ওলামায়ে কেরামকে ইজ্জত সম্মান করতেন,পাঁচ ওয়াক্ত নামাযে ছিলেন খুব গুরুত্ববান,এমন খোদাভীরু একজন প্ৰেসিডেন্টের ইন্তেকালে আমি গভীরভাবে শোকাহত

আল্লামা বাবুনগরী আরো বলেন,মিশরের সৰ্বস্থরের জনগণের বিপুল ভোটে নির্বাচিত মুহাম্মদ মুরসী একজন প্ৰেসিডেন্ট হওয়া সত্বেও সাদাসিদে জীবন যাপন করতেন,উচ্চ বিলাসিতা বলতে তাঁর মধ্যে কিছুই ছিলনা,পরিবার পরিজন সহ রাজধানী কায়রোতে একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন তিনি

মুহাম্মদ মুরসী শান্তিময় বিশ্ব গড়তে কুরআন সুন্নাহর সংবিধানে রাষ্ট্ৰপরিচালনা, আল্লাহর জমিনে আল্লাহর হুকুমত প্ৰতিষ্ঠা এবং সন্ত্ৰাস দমনে ইসলামী জিহাদের বিশ্বাসী হকের উপর অটল অবিচল একজন আপোষহীন নেতা ছিলেন, অন্যায় অবিচার,জুলুম আর অত্যাচারের বিরুদ্ধে সদা তিনি সোচ্চার ছিলেন,একজন আমানতদার প্ৰেসিডেন্ট হিসেবে মুহাম্মদ মুরসী মিশরের সকল মানুষের অন্তরে স্থান করে নিয়েছিলেন

আল্লামা বাবুনগরী আরো বলেন,
ইসলামের ইতিহাসে মিসর একটি গুরুত্বপূৰ্ণ দেশ, মিসর বিজয়ী ছিলেন রাসুল সা. এর সাহাবী হযরত আমর ইবনুল আস রাদি.

মুহাম্মদ মুরসী সাহাবায়ে কেরামের স্মৃতিধন্য সেই মিশরে আল্লাহর হুকুমত প্ৰতিষ্ঠার লক্ষে জুলুম ও তাগুতের বিরুদ্ধে আমরণ সংগ্ৰাম করেছেন, তিনি হক প্ৰতিষ্ঠায় বাতিলের অনেক জুলুম নিৰ্যাতন সহ্য করেছেন,কারা প্ৰকৌষ্ঠে মানবেতর জীবন যাপন করেছেন এবং মাজলুম অবস্থায় কারাগারেই তাকে বিনা চিকিৎসায় তিলে তিলে হত্যা করা হয়েছে

মুহাম্মদ মুরসী একজন দেশপ্ৰেমিক প্ৰেসিডেন্ট ছিলেন, শত জুলুম নিৰ্যাতন সত্বেও স্বদেশ ছেড়ে কোথাও যাননি তিনি, মিশরের লাখ লাখ মুসলমানের প্ৰাণের নেতা ছিলেন হাফেজ মুহাম্মদ মুরসী

শুধু মিসরবাসী নয় পুরো মুসলিম উম্মাহ মুহাম্মদ মুরসীকে তাঁর কৰ্মগুণে চিরকাল স্মরণ রাখবে,মিশরবাসী তাদের প্ৰিয় ও ত্যাগী নেতা মুরসীর জন্য যে ত্যাগ স্বীকার করেছে, হাজার-হাজার মানুষ শাহাদাৎ বরণ করেছে, ইতিহাসের পাতায় এসব স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। ভক্তবৃন্দের হৃদয়ে অমর হয়ে থাকবেন প্ৰেসিডেন্ট মুরসী

বাতিলের বিরুদ্ধে লড়াই সংগ্ৰাম করে জালিমের কারা প্ৰকৌষ্ঠে মাজলুম অবস্থায় ইন্তেকাল করে মুহাম্মদ মুরসী বিশ্ব মুসলিম যুবকদেরকে এ বাৰ্তা দিয়েছেন যে,হকের ব্যপারে বাতিলের সাথে কোন আপোষ নেই,নিজের প্ৰাণের বিণিময়ে হলেও সব ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে আমরণ বাতিলের বিরুদ্ধে লড়াই সংগ্ৰাম করে আল্লাহর জমিনে আল্লাহর হুকুমত কায়েম করতে হবে

পরিশেষে আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী মরহুমের শোক সন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বলেন, মহান প্রভুর দরবারে আমি দুআ করি, আল্লাহ তাআলা তাঁর সকল দ্বীনি খেদমতকে কবুল করুন এবং ত্রুটি-বিচ্যুতি ক্ষমা করে জান্নাতের সর্বোচ্চ স্থান দান করুন,এবং তাঁর পরিবারকে সবরে জামিলের তাওফীক দান করুন, আমিন

- Advertisement -

Latest news

হতাশ হয়ে পাকিস্তানে ফেরত যাচ্ছেন নাগরিকত্বের আশায় ভারতে আসা হিন্দু ও শিখরা!

আশাহত হয়ে পাকিস্তান ফিরে যাচ্ছেন মোদি সরকারের আমলে ভারতীয় নাগরিকত্ব পাওয়ার আশায় পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দু ও শিখ শরণার্থীরা। করোনার কারণে আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি ও...
- Advertisement -

যে গাছগুলোতে রয়েছে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

যেসব গাছের এক বা একাধিক অংশ প্রাণীদের ক্ষেত্রে দরকারি ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয় তাকে ঔষধি গাছ বলে। গাছ যদি হয় বিভিন্ন রোগের ওষুধ, তখন...

হাজার কোটি টাকা দিলেও আর হিজাব ছাড়ব না : হালিমা ইডেন

ধর্মীয় বিশ্বাসের সাথে আপস করার জন্য চাপ অনুভব করার প্রেক্ষাপটে মুসলিম মডেল হালিমা ইডেন ফ্যাশন শো থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। বুধবার ২৩ বছর...

ধর্ষকদের শাস্তি পুরুষাঙ্গ অকেজো, ইমরান খানের অনুমোদন!

ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড এবং রাসায়ানিক প্রয়োগের মাধ্যমে ধর্ষকের পুরুষাঙ্গ অকেজো (খোজাকরণ) করে দেয়ার বিধান রেখে দুটি অধ্যাদেশ অনুমোদন দিয়েছে পাকিস্তানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিপরিষদ। মঙ্গলবার...

Related news

হতাশ হয়ে পাকিস্তানে ফেরত যাচ্ছেন নাগরিকত্বের আশায় ভারতে আসা হিন্দু ও শিখরা!

আশাহত হয়ে পাকিস্তান ফিরে যাচ্ছেন মোদি সরকারের আমলে ভারতীয় নাগরিকত্ব পাওয়ার আশায় পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দু ও শিখ শরণার্থীরা। করোনার কারণে আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি ও...

যে গাছগুলোতে রয়েছে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

যেসব গাছের এক বা একাধিক অংশ প্রাণীদের ক্ষেত্রে দরকারি ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয় তাকে ঔষধি গাছ বলে। গাছ যদি হয় বিভিন্ন রোগের ওষুধ, তখন...

হাজার কোটি টাকা দিলেও আর হিজাব ছাড়ব না : হালিমা ইডেন

ধর্মীয় বিশ্বাসের সাথে আপস করার জন্য চাপ অনুভব করার প্রেক্ষাপটে মুসলিম মডেল হালিমা ইডেন ফ্যাশন শো থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। বুধবার ২৩ বছর...

ধর্ষকদের শাস্তি পুরুষাঙ্গ অকেজো, ইমরান খানের অনুমোদন!

ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড এবং রাসায়ানিক প্রয়োগের মাধ্যমে ধর্ষকের পুরুষাঙ্গ অকেজো (খোজাকরণ) করে দেয়ার বিধান রেখে দুটি অধ্যাদেশ অনুমোদন দিয়েছে পাকিস্তানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিপরিষদ। মঙ্গলবার...
- Advertisement -