31 C
Dhaka
Thursday, April 15, 2021

ফরজ বিধান পর্দা নিয়ে মেননের কটাক্ষ; আল্লামা বাবুনগরীর প্রতিবাদ

- Advertisement -
- Advertisement -

গত রোববার (১৬ জুন) জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে “হিজাব সৌদির সংস্কৃতি, বাংলাদেশের সংস্কৃতি নয়, মেননের দেয়া এমন বিতর্কিত বক্তব্যের কড়া প্ৰতিবাদ জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ও হাটহাজারী মাদরাসার সহযোগী পরিচালক আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী। তিনি বলেন, পৰ্দা ইসলামের অন্যতম একটি ফরজ বিধান, ইসলামের ফরজ বিধান হিজাব [পৰ্দা] কে কেবল সৌদি সংস্কৃতি বলে কটাক্ষ করে রাশেদ খান মেনন মুসলমানদের ধৰ্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করেছেন। অনতিবিলম্বে শরয়ী বিধান হিজাবকে বাংলাদেশের সংস্কৃতি নয়;সৌদি সংস্কৃতি বলে কটাক্ষ করে মেননের দেয়া বক্তব্য প্ৰত্যাহার করে প্ৰকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। অন্যথায় তার এ বিতৰ্কিত ও আপত্তিকর বক্তব্য তৌহিদী জনতার ক্ষোভের কারণ হতে পারে।

আজ বুধবার (১৯ জুন) সংবাদ মাধ্যমে প্ৰেরিত এক বিবৃতিতে তিনি এ প্রতিবাদ জানান।

আল্লামা বাবুনগরী বলেন, হিজাব [পৰ্দা] কোন সৌদির সংস্কৃতি নয় বরং ইসলামী সংস্কৃতি, পবিত্ৰ কুরআন শরীফের ৭ টি আয়াত এবং রাসুল সা. ৭০ টির মত হাদীস দ্বারা প্ৰমাণিত ইসলামের অন্যতম ফরজ বিধান। ইসলাম সম্পৰ্কে মেননের জানা উচিত যে, আল্লাহ তায়ালার নিকট একমাত্ৰ মনোনিত ধৰ্ম ইসলাম,আর এটি বিশ্বধৰ্ম, কোন আঞ্চলিক ধৰ্ম নয়। সমস্ত মুসলমানদের আকিদা বিশ্বাস, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর আনিত শরীয়তের বিধি বিধান কেবল সৌদি আরব বা বিশেষ কোন দেশের জন্য নিৰ্দিষ্ট নয় বরং ইসলামের প্ৰত্যেকটা বিধান বিশ্ববাসীর জন্য পালনীয়। কারণ রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কোনো আঞ্চলিক নবী নন, তিনি হলেন বিশ্ব নবী। সুতরাং হিজাবের বিধান বাংলাদেশ, সৌদি আরব সহ পুরো বিশ্বে চলবে।

আল্লামা বাবুনগরী আরো বলেন, হিজাব ইসলামের অন্যতম ফরজ বিধান, হিজাব হলো নারী জাতি সুরক্ষিত থাকার অন্যতম মাধ্যম, এ ফরজ বিধানকে সৌদি সংস্কৃতি বলে কটাক্ষকারী ইসলাম ও মুসলমানদের চরম দুশমন। কোন ঈমানদার হিজাবকে সৌদি সংস্কৃতি বলে কটাক্ষ করে ধৰ্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করতে পারে না। হিজাবের বিধান সৌদি কোন সংস্কৃতি নয় বরং ইসলামী সংস্কৃতি। কোন ফরজ বিধানকে কটাক্ষকারী মুসলমান থাকতে পারে না।

শরয়ী হিজাব নারীর ভূষণ ও ইজ্জত আবরু রক্ষার অন্যতম মাধ্যম উল্লেখ করে আল্লামা বাবুনগরী বলেন,ফরজ বিধান হিজাবের বিরোধিতা করে ওরা মূলত নারী সমাজকে বেপৰ্দার দিকে ঠেলে দিয়ে শান্তির পরিবেশ বিনষ্ট করে সমাজকে বিশৃঙ্খল করতে চায়। নারীরা বেপৰ্দায় চললে সমাজে ইভটিজিং,ধৰ্ষণ ও নারী নিৰ্যাতনের মতো জঘন্য অপরাধ সংগঠিত হবে যার প্ৰমাণ বৰ্তমানে ভুরিভুরি পাওয়া যায়।

হুশিয়ারী উচ্চারণ করে আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন, বাংলাদেশর মানুষ ধৰ্মপ্ৰাণ ও ইসলাম প্ৰিয়। ইসলামের কোন বিধান নিয়ে প্ৰত্যক্ষ কিংবা পরোক্ষভাবে কটাক্ষ করলে তা এ দেশের কোটি কোটি মুসলমান মেনে নেবে না। প্রকাশ্যে ক্ষমা না চাইলে দূৰ্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে বাধ্য হবে।

- Advertisement -

Latest news

হতাশ হয়ে পাকিস্তানে ফেরত যাচ্ছেন নাগরিকত্বের আশায় ভারতে আসা হিন্দু ও শিখরা!

আশাহত হয়ে পাকিস্তান ফিরে যাচ্ছেন মোদি সরকারের আমলে ভারতীয় নাগরিকত্ব পাওয়ার আশায় পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দু ও শিখ শরণার্থীরা। করোনার কারণে আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি ও...
- Advertisement -

যে গাছগুলোতে রয়েছে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

যেসব গাছের এক বা একাধিক অংশ প্রাণীদের ক্ষেত্রে দরকারি ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয় তাকে ঔষধি গাছ বলে। গাছ যদি হয় বিভিন্ন রোগের ওষুধ, তখন...

হাজার কোটি টাকা দিলেও আর হিজাব ছাড়ব না : হালিমা ইডেন

ধর্মীয় বিশ্বাসের সাথে আপস করার জন্য চাপ অনুভব করার প্রেক্ষাপটে মুসলিম মডেল হালিমা ইডেন ফ্যাশন শো থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। বুধবার ২৩ বছর...

ধর্ষকদের শাস্তি পুরুষাঙ্গ অকেজো, ইমরান খানের অনুমোদন!

ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড এবং রাসায়ানিক প্রয়োগের মাধ্যমে ধর্ষকের পুরুষাঙ্গ অকেজো (খোজাকরণ) করে দেয়ার বিধান রেখে দুটি অধ্যাদেশ অনুমোদন দিয়েছে পাকিস্তানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিপরিষদ। মঙ্গলবার...

Related news

হতাশ হয়ে পাকিস্তানে ফেরত যাচ্ছেন নাগরিকত্বের আশায় ভারতে আসা হিন্দু ও শিখরা!

আশাহত হয়ে পাকিস্তান ফিরে যাচ্ছেন মোদি সরকারের আমলে ভারতীয় নাগরিকত্ব পাওয়ার আশায় পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দু ও শিখ শরণার্থীরা। করোনার কারণে আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি ও...

যে গাছগুলোতে রয়েছে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

যেসব গাছের এক বা একাধিক অংশ প্রাণীদের ক্ষেত্রে দরকারি ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয় তাকে ঔষধি গাছ বলে। গাছ যদি হয় বিভিন্ন রোগের ওষুধ, তখন...

হাজার কোটি টাকা দিলেও আর হিজাব ছাড়ব না : হালিমা ইডেন

ধর্মীয় বিশ্বাসের সাথে আপস করার জন্য চাপ অনুভব করার প্রেক্ষাপটে মুসলিম মডেল হালিমা ইডেন ফ্যাশন শো থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। বুধবার ২৩ বছর...

ধর্ষকদের শাস্তি পুরুষাঙ্গ অকেজো, ইমরান খানের অনুমোদন!

ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড এবং রাসায়ানিক প্রয়োগের মাধ্যমে ধর্ষকের পুরুষাঙ্গ অকেজো (খোজাকরণ) করে দেয়ার বিধান রেখে দুটি অধ্যাদেশ অনুমোদন দিয়েছে পাকিস্তানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিপরিষদ। মঙ্গলবার...
- Advertisement -