31 C
Dhaka
Thursday, April 15, 2021

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিবাদ জানালেন শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী

- Advertisement -
- Advertisement -

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের সাবেক সিনিয়র নায়েবে আমির , দেশের ঐতিহ্যবাহী দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জামিয়া আজিজুল উলুম বাবুনগর মাদরাসার মহা পরিচালক মাওলানা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী বলেছেন, ধর্মপ্রাণ মুসলিম নারীদের বাইরে চলাচলের সময় হাত-পায় মোজা পরা ও চেহারা ঢাকা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর আপত্তিকর বক্তব্য ইসলাম অবমাননার শামিল,বক্তব্য প্রত্যাহার করে প্রকাশ্যে তাওবা করা উচিত

আজ (১৫ জুন) শনিবার সংবাদ মাধ্যমে প্ৰেরিত এক বিবৃতিতে এ সব কথা বলেন তিনি।

মাওলানা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বলেন, পর্দা ইসলামের অন্য দশটি ফরজ বিধানের মত একটি জরুরী ও কল্যাণময় বিধান ৷ যা পবিত্র কোরআনের সাতটি আয়াত অর্ধশত হাদিস দ্বারা প্রমাণিত ৷নামাজ আদায় না করা কবীরাহ গুনাহ ,অস্বীকারকারী ব্যক্তি কাফের ৷অনুরুপ পর্দা বা হিজাব কারো ইচ্ছা না হলে সে করবে না ৷ তাতে তিনি গুনাহগার হবেন ৷কিন্তু মুসলিম হয়ে পর্দার অস্বীকৃতি জানালে সে আর ব্যক্তি মুসলিম থাকতে পারে না ৷

পর্দা নারীর রক্ষাকবচ। পর্দার কারণে নারী জাতি সুরক্ষিত থাকে৷ সমাজে নারী ধর্ষণ ও ইভটিজিং বন্ধ হবে। পর্দা নারীর সম্মান বৃদ্ধি করে। সম্ভ্রম রক্ষা করে। পর্দার বিরুদ্ধে যেকোনো বক্তব্য নারীর নিরাপত্তার জন্য হুমকি।

গত ৯ জুন রোববার গণভবনে সংবাদ সম্মেলনের একপর্যায়ে ধর্মপ্রাণ মুসলিম নারীদের পর্দার প্রতি ইঙ্গিত করে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, “হাত মোজা পা মোজা নাক-চোখ ঢাইকা একেবারে এটা কি? জীবন্ত ট্যান্ট (তাঁবু) হয়ে ঘুরে বেড়ানো, এর তো কোনো মানে হয় না” পর্দা করা ইসলামের আদেশ ,হাত-পা মোজা ও নেকাব মুসলিম পর্দানশীন নারীদের পোশাক ৷তাই প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্য ইসলাম ও মুসলিমদের জন্য অত্যন্ত অবমাননাকর হয়েছে।

এই বক্তব্যে ইসলামের অপরিহার্য বিধান পর্দাকে বাজেভাবে কটাক্ষ করা হয়েছে। পবিত্র কুরআনের পর্দা সম্পর্কীত ৭ আয়াত ও অসংখ্য হাদীসকে অস্বীকার করা হয়েছে ! কোরআনের একটি শব্দ নয় একটি হরফ বা নুক্তাকে অস্বীকার করলে সে আর নিজেকে মুসলমি দাবী করতে পারবে না ৷ দাবী করতে চাইলে তাকে অবশ্যই সহীহ তাওবা করতে হবে ৷

তিনি আরো বলেন, প্রাধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের কারণে ইসলামের পক্ষে ইতঃপূর্বে প্রদত্ত তার সব বক্তব্য ও কাজগুলো এমনকি পবিত্র রমজানে উমরাকালে তার বোরকা ও হিজাব পরিধান জাতির কাছে এখন প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

পর্দানশীন নারীদের তুচ্ছ-তাচ্ছিল্যমূলক ও মুসলিম সেন্টিমেন্ট বিরোধী এই বক্তব্য প্রত্যাহার করে প্রকাশ্য তাওবা করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি তিনি আহ্বান জানিয়ে মাওলানা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বলেন, অনতিবিলম্বে প্রধানমন্ত্রী তাঁর এ বক্তব্য প্রত্যাহার না করলে ধর্মপ্রাণ জনগণের ক্ষোভের কারণে যেকোনো রকমের কঠিন পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে। এবং তার জন্য তিনিই একক দায়ী থাকবেন ৷

মহান প্ৰভুর দরবারে দুআ করে তিনি বলেন, আমি দুআ করি আল্লাহ তাকে সুমতি দান করুন, আমীন ৷

Insaf

- Advertisement -

Latest news

হতাশ হয়ে পাকিস্তানে ফেরত যাচ্ছেন নাগরিকত্বের আশায় ভারতে আসা হিন্দু ও শিখরা!

আশাহত হয়ে পাকিস্তান ফিরে যাচ্ছেন মোদি সরকারের আমলে ভারতীয় নাগরিকত্ব পাওয়ার আশায় পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দু ও শিখ শরণার্থীরা। করোনার কারণে আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি ও...
- Advertisement -

যে গাছগুলোতে রয়েছে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

যেসব গাছের এক বা একাধিক অংশ প্রাণীদের ক্ষেত্রে দরকারি ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয় তাকে ঔষধি গাছ বলে। গাছ যদি হয় বিভিন্ন রোগের ওষুধ, তখন...

হাজার কোটি টাকা দিলেও আর হিজাব ছাড়ব না : হালিমা ইডেন

ধর্মীয় বিশ্বাসের সাথে আপস করার জন্য চাপ অনুভব করার প্রেক্ষাপটে মুসলিম মডেল হালিমা ইডেন ফ্যাশন শো থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। বুধবার ২৩ বছর...

ধর্ষকদের শাস্তি পুরুষাঙ্গ অকেজো, ইমরান খানের অনুমোদন!

ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড এবং রাসায়ানিক প্রয়োগের মাধ্যমে ধর্ষকের পুরুষাঙ্গ অকেজো (খোজাকরণ) করে দেয়ার বিধান রেখে দুটি অধ্যাদেশ অনুমোদন দিয়েছে পাকিস্তানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিপরিষদ। মঙ্গলবার...

Related news

হতাশ হয়ে পাকিস্তানে ফেরত যাচ্ছেন নাগরিকত্বের আশায় ভারতে আসা হিন্দু ও শিখরা!

আশাহত হয়ে পাকিস্তান ফিরে যাচ্ছেন মোদি সরকারের আমলে ভারতীয় নাগরিকত্ব পাওয়ার আশায় পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দু ও শিখ শরণার্থীরা। করোনার কারণে আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি ও...

যে গাছগুলোতে রয়েছে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

যেসব গাছের এক বা একাধিক অংশ প্রাণীদের ক্ষেত্রে দরকারি ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয় তাকে ঔষধি গাছ বলে। গাছ যদি হয় বিভিন্ন রোগের ওষুধ, তখন...

হাজার কোটি টাকা দিলেও আর হিজাব ছাড়ব না : হালিমা ইডেন

ধর্মীয় বিশ্বাসের সাথে আপস করার জন্য চাপ অনুভব করার প্রেক্ষাপটে মুসলিম মডেল হালিমা ইডেন ফ্যাশন শো থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। বুধবার ২৩ বছর...

ধর্ষকদের শাস্তি পুরুষাঙ্গ অকেজো, ইমরান খানের অনুমোদন!

ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড এবং রাসায়ানিক প্রয়োগের মাধ্যমে ধর্ষকের পুরুষাঙ্গ অকেজো (খোজাকরণ) করে দেয়ার বিধান রেখে দুটি অধ্যাদেশ অনুমোদন দিয়েছে পাকিস্তানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিপরিষদ। মঙ্গলবার...
- Advertisement -