নারায়ণগঞ্জের পশ্চিম তল্লা এলাকায় বায়তুস সালাত জামে মসজিদে এসি বিস্ফোরণের ঘটনায় শিশু ও মুয়াজ্জিনসহ নিহত ১২ জন।২৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) এশার জামাতের পর এসি বিস্ফোরণের এ ঘটনা ঘটে। এতে আহত হয়েছেন ৪৩ জন মুসল্লি। এদের মধ্যে দগ্ধ ৩৭ জনকে শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

এপর্যন্ত ১২ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন ডাঃ সামন্ত লাল সেন।

ফতুল্লা থানার ওসি আসলাম হোসেন গতকাল গণমাধ্যমকে বলেন, তল্লা বায়তুস সালাত জামে মসজিদে ৬টি এসি বিস্ফোরণ ঘটে।
দগ্ধ ৪০ জনকে ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মসজিদটিতে দেড় থেকে দুইশ’ মুসল্লি এশার নামাজে অংশ নেন। জামাত শেষে মুসল্লিরা যখন সুন্নত নামাজ আদায় করছিলেন তখন একটি এসি বিস্ফোরিত হয়। এতে অন্তত ৪৫ জন আহত হন।

আহতদের প্রথমে নারায়ণগঞ্জ সদর হাসপাতলে নেয়া হয়। কিছুক্ষণের মধ্যেই সেখান থেকে ৩৭জনকে শেখ হাসিনা বার্ন ইন্সটিটিউটে পাঠানো হয়েছিল।