17 C
Dhaka
Monday, January 18, 2021

ধর্ষক ও খুনি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে কোরআনে হাফেজ গ্রেপ্তার!

- Advertisement -
- Advertisement -

নেত্রকোণার বারহাট্টা উপজেলার সিংধা ইউপি চেয়ারম্যান, ধর্ষক ও খুনি শাহ মাহবুব মুর্শেদ কাঞ্চনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদকারী যুবক, জামেয়া কোরআনিয়া আরাবিয়া, লালবাগের শিক্ষার্থী হাফেজ ইলিয়াস আমমেদকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
ধর্ষক ও খুনি কাঞ্চন চেয়ারম্যান নিজেকে রক্ষার জন্য একজন শ্রমিককে মারুফার প্রেমিক বানাতে চেয়েছিলো। ইলিয়াস আহমেদ সেই তথ্য ফাঁস করে দেয়। সেজন্য তার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
মারুফা চেয়ারম্যানের বাড়িতে কাজ করতো। বিভিন্ন সময়ে এই কিশোরীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেছে এই চেয়ারম্যান। কিন্তু তার স্ত্রীর জন্য সেটি সম্ভবপর হয়নি। বাপ হারা মেয়েটিকে নিজের মেয়ের মত মানুষ করার জন্য বাড়িতে রেখেছিলো চেয়ারম্যান। কিন্তু একসময়ে এই মেয়েটিই চেয়ারম্যানের কুনজরে পড়ে। শেষমেশ আর শেষরক্ষা হয়নি। চেয়ারম্যানের হাতে খুন ও ধর্ষণের শিকার হয় মেয়েটি। এ নিয়ে নেত্রকোণায় প্রতিবাদ ছড়িয়ে পড়ে। প্রতিবাদের নেতৃত্ব দেয় হাফেজ ইলিয়াস আহমেদ। জনগণের প্রতিবাদের ফলে পুলিশ চেয়ারম্যানকে গ্রেপ্তার করে, কিন্তু গ্রেপ্তারের কয়েকদিনের মধ্যে টাকা ও ক্ষমতার জোরে চেয়ারম্যান জামিন পেয়ে যায়। এটিরও প্রতিবাদ করে ইলিয়াস।
শেষমেশ ধর্ষণ ও খুনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে ইলিয়াসকেই জেলে যেতে হয়।
কোন দেশে বাস করছি আমরা?
ধর্ষক জামিন নিয়ে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে, আর প্রতিবাদ করার কারণে একজন কোরআনে হাফেজ আজ জেলে?
শোনা যাচ্ছে যারা মারুফা হত্যার বিচার চেয়ে লেখালেখি এবং আন্দোলনের নেতৃত্ব দিয়েছিল তাদের নামে মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে৷
স্বাধীনদেশে একজন ধর্ষককে বাঁচাতে ক্ষমতার অপব্যবহার? ধিক্কার।

দেশের আলেম সমাজ, শিক্ষার্থী ভাই-বোনদেরকে ইলিয়াসের পাশে দাঁড়ানোর অনুরোধ জানাই।

মুহাম্মদ রাশেদ খান এর ওয়াল থেকে।

- Advertisement -

Latest news

হতাশ হয়ে পাকিস্তানে ফেরত যাচ্ছেন নাগরিকত্বের আশায় ভারতে আসা হিন্দু ও শিখরা!

আশাহত হয়ে পাকিস্তান ফিরে যাচ্ছেন মোদি সরকারের আমলে ভারতীয় নাগরিকত্ব পাওয়ার আশায় পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দু ও শিখ শরণার্থীরা। করোনার কারণে আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি ও...
- Advertisement -

যে গাছগুলোতে রয়েছে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

যেসব গাছের এক বা একাধিক অংশ প্রাণীদের ক্ষেত্রে দরকারি ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয় তাকে ঔষধি গাছ বলে। গাছ যদি হয় বিভিন্ন রোগের ওষুধ, তখন...

হাজার কোটি টাকা দিলেও আর হিজাব ছাড়ব না : হালিমা ইডেন

ধর্মীয় বিশ্বাসের সাথে আপস করার জন্য চাপ অনুভব করার প্রেক্ষাপটে মুসলিম মডেল হালিমা ইডেন ফ্যাশন শো থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। বুধবার ২৩ বছর...

ধর্ষকদের শাস্তি পুরুষাঙ্গ অকেজো, ইমরান খানের অনুমোদন!

ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড এবং রাসায়ানিক প্রয়োগের মাধ্যমে ধর্ষকের পুরুষাঙ্গ অকেজো (খোজাকরণ) করে দেয়ার বিধান রেখে দুটি অধ্যাদেশ অনুমোদন দিয়েছে পাকিস্তানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিপরিষদ। মঙ্গলবার...

Related news

হতাশ হয়ে পাকিস্তানে ফেরত যাচ্ছেন নাগরিকত্বের আশায় ভারতে আসা হিন্দু ও শিখরা!

আশাহত হয়ে পাকিস্তান ফিরে যাচ্ছেন মোদি সরকারের আমলে ভারতীয় নাগরিকত্ব পাওয়ার আশায় পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দু ও শিখ শরণার্থীরা। করোনার কারণে আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি ও...

যে গাছগুলোতে রয়েছে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

যেসব গাছের এক বা একাধিক অংশ প্রাণীদের ক্ষেত্রে দরকারি ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয় তাকে ঔষধি গাছ বলে। গাছ যদি হয় বিভিন্ন রোগের ওষুধ, তখন...

হাজার কোটি টাকা দিলেও আর হিজাব ছাড়ব না : হালিমা ইডেন

ধর্মীয় বিশ্বাসের সাথে আপস করার জন্য চাপ অনুভব করার প্রেক্ষাপটে মুসলিম মডেল হালিমা ইডেন ফ্যাশন শো থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। বুধবার ২৩ বছর...

ধর্ষকদের শাস্তি পুরুষাঙ্গ অকেজো, ইমরান খানের অনুমোদন!

ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড এবং রাসায়ানিক প্রয়োগের মাধ্যমে ধর্ষকের পুরুষাঙ্গ অকেজো (খোজাকরণ) করে দেয়ার বিধান রেখে দুটি অধ্যাদেশ অনুমোদন দিয়েছে পাকিস্তানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিপরিষদ। মঙ্গলবার...
- Advertisement -