গুঁড়ো দুধ চুরির অভিযোগে চট্টগ্রামের দোকানের কর্মচারীকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার পর ভবনের গুদামে লাশ ফেলে রাখার অভিযোগ পরিবারের। এ ঘটনায় অভিযুক্ত দোকান মালিকসহ ২ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

বুক ফাটা এমন আহাজারি রাসেলের মায়ের। বুকের মানিক সন্তানকে হারিয়ে পাগলপ্রায় জন্মদাতা মা।

অভিযোগ তেমন কিছু নয়। সামান্য গুড়ো দুধ চুরি। ঠুনকো এ অজুহাতে দোকান কর্মচারীকে রাসেলকে পিটিয়ে মেরেছে দোকান মালিক। এমন মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে চট্টগ্রামের রিয়াজউদ্দীন বাজারে।

রাসেলকে মেরে রিয়াজ উদ্দীন বাজারের এস এস টাওয়ারের গুদামে ফেলে রাখে পালিয় যায় মালিক। পরে মৃতু অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

এদিকে, এ ঘটনায় দোকান মালিক আরমানসহ দুজনকে আটক করেছে পুলিশ। বাবা বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা করেছে বলে জানায় পুলিশ।

কোতোয়ালি থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন জানান, এক দোকান কর্মচারীকে দুধ চুরি করার জন্য প্রচুর মারে। আমরা ঘটনার খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করেছি। এছাড়া দোকান মালিকের ভাইকে আটক করেছি।

রাসেলের গ্রামের বাড়ি নেত্রকোনায়। মা বাবার সাথে চট্টগ্রাম নগরীর আইস ফেক্টরি রোড থাকতো রাসেল।