31 C
Dhaka
Thursday, April 15, 2021

ডিজিটাল আইনে সরকার গ্রেফতার খেলায় মেতেছে: ভিপি নুর

- Advertisement -
- Advertisement -


চলমান২৪ঃ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ব্যবহার করে ভিন্নমত দমনের জন্য মহামারির মধ্যেও সরকার গ্রেফতার খেলায় মেতেছে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুর।

রবিবার (১০ মে) দুপুরে রাজধানীর প্রেসক্লাবের সামনে ‘রাষ্ট্রচিন্তা ও বন্ধুজনের’ উদ্যোগে বিতর্কিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ও অন্যায়ভাবে গ্রেফতারকৃতদের মুক্তি দাবিতে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘বিতর্কিত ডিজিটাল আইনে মানুষকে গুম করছে, বাসা থেকে তুলে নিয়ে অন্যায়ভাবে মিথ্যা মামলায় জড়াচ্ছে।’

ভিপি নুর বলেন, বিতর্কিত ডিজিটায় নিরাপত্তা আইনের শুরু থেকে বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ বাতিলের দাবি তুলেছিল। এমনকি গণমাধ্যমের কর্মীরাও এই আইনে হয়রানির শিকার হবেন, বাধাগ্রস্থ হবেন বলে আপত্তি তুলেছিলেন।

‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রয়োগের শুরু থেকেই ভিন্নমতের ধমন করতে আইনটিকে ব্যবহার করা হচ্ছে। অথচ যখন বিভিন্ন গণমাধ্যমের সম্পাদকদের সংগঠন ‘সম্পাদক পরিষদ’ এই আইনের বেশ কয়েকটি ধারা নিয়ে আপত্তি তোলেন তখন তথ্যমন্ত্রী বলেছিলেন এই আইনে কোন সাধারণ মানুষ অথবা কোন সাংবাদিককে হয়রানি করা হবে না।’

সাংবাদিক কাজলের ঘটনা তুলে ধরে নুর বলেন, সাংবাদিক কাজল অফিস থেকে রাতে বের হওয়ার পর গুম হন। তারপর ৫৩ দিন পর সিমান্তবর্তী অঞ্চলে তাকে পাওয়া যায়। এছাড়া একজন কার্টুনিষ্ট একজন ব্যবসায়িসহ অসংখ্য মানুষকেও করোনা মহামারিতে সরকার অন্যায় ভাবে গ্রেফতার করেছেন।

ডাকসু ভিপি বলেন, শুধুমাত্র সরকারের দূর্বলতাকে আড়াল করার জন্য, নাগরিকদের মুখ বন্ধ করার জন্য বিভিন্ন হুমকি দিচ্ছে, হয়রানি করছে এমনকি তুলে নিয়ে যাচ্ছে। কয়েকদিন আগে রাষ্ট্রচিন্তার নেতা দিদারকে র‌্যাবের সাদা পোশাকধারীরা তুলে নিয়ে গেছেন। এই সাদা পোশাকে তুলে নেয়ার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও সেটাকে তোয়াক্কা না করে সরকার এটা করে যাচ্ছে।

নুর বলেন, করেনা পরিস্থিতিতে মানুষ মৃত্যুর ভয়ে মানুষ বাসা-বাড়ি থেকে বের হচ্ছে না কিন্তু আজ পিঠ দেয়ালে ঠেকে যাওয়ায় বিতর্কিত ডিজিটাল আইনের বাতিলের দাবিতে রাজপথে আসতে বাধ্য হয়েছে। আমরা অনেক নির্যাতনের শিকার হয়েছি এদেশের অসংখ্য মানুষ এ সরকারের নির্যাতনের শিকার হয়েছে। আর নয় এখন আমাদের সবার ঐক্যবদ্ধ প্রতিবাদ করতে হবে। আমরা সাহাবাগ, প্রেসক্লাবে অনেক দাঁড়িয়েছে আর নয় এবার গণবভনের সমনে দাঁড়াতে হবে।

- Advertisement -

Latest news

হতাশ হয়ে পাকিস্তানে ফেরত যাচ্ছেন নাগরিকত্বের আশায় ভারতে আসা হিন্দু ও শিখরা!

আশাহত হয়ে পাকিস্তান ফিরে যাচ্ছেন মোদি সরকারের আমলে ভারতীয় নাগরিকত্ব পাওয়ার আশায় পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দু ও শিখ শরণার্থীরা। করোনার কারণে আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি ও...
- Advertisement -

যে গাছগুলোতে রয়েছে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

যেসব গাছের এক বা একাধিক অংশ প্রাণীদের ক্ষেত্রে দরকারি ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয় তাকে ঔষধি গাছ বলে। গাছ যদি হয় বিভিন্ন রোগের ওষুধ, তখন...

হাজার কোটি টাকা দিলেও আর হিজাব ছাড়ব না : হালিমা ইডেন

ধর্মীয় বিশ্বাসের সাথে আপস করার জন্য চাপ অনুভব করার প্রেক্ষাপটে মুসলিম মডেল হালিমা ইডেন ফ্যাশন শো থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। বুধবার ২৩ বছর...

ধর্ষকদের শাস্তি পুরুষাঙ্গ অকেজো, ইমরান খানের অনুমোদন!

ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড এবং রাসায়ানিক প্রয়োগের মাধ্যমে ধর্ষকের পুরুষাঙ্গ অকেজো (খোজাকরণ) করে দেয়ার বিধান রেখে দুটি অধ্যাদেশ অনুমোদন দিয়েছে পাকিস্তানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিপরিষদ। মঙ্গলবার...

Related news

হতাশ হয়ে পাকিস্তানে ফেরত যাচ্ছেন নাগরিকত্বের আশায় ভারতে আসা হিন্দু ও শিখরা!

আশাহত হয়ে পাকিস্তান ফিরে যাচ্ছেন মোদি সরকারের আমলে ভারতীয় নাগরিকত্ব পাওয়ার আশায় পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দু ও শিখ শরণার্থীরা। করোনার কারণে আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি ও...

যে গাছগুলোতে রয়েছে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

যেসব গাছের এক বা একাধিক অংশ প্রাণীদের ক্ষেত্রে দরকারি ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয় তাকে ঔষধি গাছ বলে। গাছ যদি হয় বিভিন্ন রোগের ওষুধ, তখন...

হাজার কোটি টাকা দিলেও আর হিজাব ছাড়ব না : হালিমা ইডেন

ধর্মীয় বিশ্বাসের সাথে আপস করার জন্য চাপ অনুভব করার প্রেক্ষাপটে মুসলিম মডেল হালিমা ইডেন ফ্যাশন শো থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন। বুধবার ২৩ বছর...

ধর্ষকদের শাস্তি পুরুষাঙ্গ অকেজো, ইমরান খানের অনুমোদন!

ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড এবং রাসায়ানিক প্রয়োগের মাধ্যমে ধর্ষকের পুরুষাঙ্গ অকেজো (খোজাকরণ) করে দেয়ার বিধান রেখে দুটি অধ্যাদেশ অনুমোদন দিয়েছে পাকিস্তানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিপরিষদ। মঙ্গলবার...
- Advertisement -